আইআইইউসি’র ওরিয়েণ্টেশন অনুষ্ঠানে ভিসি প্রফেসর কে.এম গোলাম মহিউদ্দিন

আমাদের দেশের জনসংখ্যার বিশ শতাংশ লোক দারিদ্র্যপীড়িত হওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে দুর্নীতি

আমাদের দেশের জনসংখ্যার বিশ শতাংশ লোক  দারিদ্র্যপীড়িত হওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে দুর্নীতি

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি) এর ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর কে.এম গোলাম মহিউদ্দিন বলেছেন, আমাদের দেশের জনসংখ্যার বিশ শতাংশ লোক দারিদ্র্যপীড়িত হওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে দুর্নীতি। শিক্ষিত লোকেরাই এই দুর্নীতি করছে। শিক্ষিত দুর্নীতিবাজদের কারণে এখন অনেক মধ্যবিত্ত পরিবার পথের ভিখারী হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের জন্যে যোগ্য হয়ে উঠতে হলে লেখাপড়ায় সময় ব্যয় করতে হবে। আল্লাহর এত বড় পৃথিবীতে শুধু পুঁথিগত বিদ্যায় সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না। আধুনিক শিক্ষা, আধুনিক জ্ঞানের বৃত্তে থাকতে হলে তথ্য প্রযুক্তির দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

আজ বুধবার সকালে কুমিরাস্থ স্থায়ী ক্যাম্পাসে আইআইইউসি‘র স্টুডেন্ট এ্যাফেয়ার্স ডিভিশন (স্ট্যাড) আয়োজিত বসন্তকালীন সেমিস্টার-২০১৮-এর নবাগত ছাত্রীদের ৪৬তম ব্যচের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি‘র ভাইস চ্যান্সেলর এ অভিমত ব্যক্ত করেন। আইআইইউসি‘র ভারপ্রাপ্ত প্রোভিসি প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টীজের ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ এবং ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহসান উল্লাহ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, শরী‘য়াহ অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. নাজমুল হক নাদভী, কলা ও মানবিক অনুষদের ডীন প্রফেসর মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর, আইআইইউসি‘র রেজিস্ট্রার কর্ণেল মোহাম্মদ কাসেম পিএসসি (অবঃ) এবং স্বাগতঃ বক্তব্য রাখেন স্টুডেন্ট এ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের পরিচালক আ. জ. ম. ওবায়েদুল্লাহ। ছাত্রীদের পক্ষে বক্তব্য রাখেন, হুমায়রা তাসনিম সুমাইয়া। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন স্ট্যাড এর অতিরিক্ত পরিচালক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ ও কবি চৌধুরী গোলাম মাওলা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র ভিসি প্রফেসর কে. এম গোলাম মহিউদ্দিন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এমন প্রজন্ম গড়ে তোলা উচিত যারা দেশ ও জাতির জন্য ভূমিকা রাখতে পারে। প্রকৃত শিক্ষার মূল উদ্দেশ্য হওয়া উচিত মানুষের নৈতিকতা ও মূল্যবোধ তৈরি করা। একজন যোগ্য ও আদর্শ মানুষ পরিবার, সমাজ এবং জাতির কল্যাণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আইআইইউসি সেই লক্ষ্যেই গুণমান ও নৈতিকতার সমন্বয়ে আন্তর্জতিক মানের শিক্ষা প্রদান করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, মূল্যবোধকে ধারণ ও চর্চা করতে হলে আল্লাহর প্রতি আনুগত্য থাকতে হবে, পিতা-মাতা ও শিক্ষকের প্রতি আনুগত্য থাকতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টীজের ভাইস চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. কাজী দ্বীন মুহাম্মদ বলেন, বর্তমান প্রজন্ম মোবাইল আর ইন্টারনেটে সময়ের অপচয় করছে। এই ধ্বংশের হাত থেকে বাঁচাতে মা-বাবাকেই দায়িত্ব নিতে হবে। তাদের কাজ হচ্ছে সন্তানদের সহজ-সরল পথ দেখিয়ে দেয়া। এমন সমৃদ্ধ ক্যাম্পাসে পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা নিয়ে লেখাপড়া করা সৌভাগ্যের ব্যাপার বলে তিনি উল্লেখ করেন।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র বোর্ড অব ট্রাস্টীজের সদস্য ও ফাইন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহসান উল্লাহ প্রতিষ্ঠান বাছাই একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উল্লেখ করে বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয় সন্ত্রাসের কারণে একদিনের জন্যেও বন্ধ হয়নি। নারীর ক্ষমতায়নের নামে প্রতারণা নয়, নারীর অধিকার আদায়ে সচেতন হতে হবে। তিনি বলেন, মেয়েদের অধিকার নিশ্চিত করার কথা বলা হলেও মেয়েদের জন্য আলাদা কোন মেডিকেল ও প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় গড়ে তোলা হয়নি।

উদ্বোধনী পর্ব শেষে স্ব স্ব বিভাগের কার্যক্রম নিয়ে আলোকপাত করেন, স্টুডেন্ট এ্যাফেয়ার্স ডিভিশনের পরিচালক আ. জ. ম. ওবায়েদুল্লাহ, সেন্টার ফর ইউনিভার্সিটি রিকোয়ারমেন্ট কোর্সেস এর পরিচালক ড. এ কে এম শাহেদ, এমডিপি’র কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. বি. এম মফিজুর রহমান, আইআইইউসি’র প্রক্টর ড. মোহাম্মদ কাওসার আহমেদ, ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান, টিএমডি’র ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মহিউদ্দীন হোসাইন, ভারপ্রাপ্ত লাইব্রেরিয়ান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম এবং স্টাফ ডেভলাপমেন্ট এন্ড সটুডেন্ট ওয়লফেয়ার ডিভিশনের অতিরিক্ত পরিচালক মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান।

Recent News