কেবল ডিগ্রী আর সনদপত্র দিয়ে জীবন পরিচালিত হতে পারে না

আইআইইউসি’র অনুষ্ঠানে ড. দেলাওয়ার হোসেন

  আইআইইউসি’র অনুষ্ঠানে ড. দেলাওয়ার হোসেন

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম (আইআইইউসি)-এর প্রো ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসেন বলেছেন, কেবল ডিগ্রী আর সনদপত্র দিয়ে জীবন পরিচালিত হতে পারে না। প্রয়োজন নৈতিক শক্তিতে আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠা। বিতর্ক, সংলাপ ইত্যাদি পাঠক্রম বহির্ভুত বিষয়ের চর্চা আত্মবিশ্বাসী হিসাবে গড়ে তুলতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে বলে তিনি উল্লেখ করেন।


আজ মঙ্গলবার সকালে কুমিরায় আইআইইউসি’র নিজস্ব ক্যাম্পাস মিলনায়তনে আইআইইউসি’র ইংরেজী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ এন্ড লিটারারী সোসাইটি (এল্স) এবং দৃষ্টি চট্টগ্রামের প্রশিক্ষণ-তত্ত্বাবধানে আয়োজিত ইংলিশ ডিবেট ওয়ার্কশপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসেন এ অভিমত ব্যক্ত করেন। এল্স সভাপতি এবং ইএলএল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ রিয়াজ মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি ও অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন আইআইইউসি’র কলা ও মানবিক অনুষদের ডীন প্রফেসর মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর এবং ইংরেজী ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইফতেখার উদ্দিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ইএলএল বিভাগের ছাত্র সায়েম মাহমুদ। ইংলিশ ডিবেট ওয়ার্কশপে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন দৃষ্টি চট্টগ্রামের যুগ্ম সম্পাদক এবং আইআইইউসি বিজনেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি জুনায়েদ কৌশিক চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আরাফাত ও সহ সম্পাদক রিদোয়ান আলম আদনান।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ড. মোঃ দেলাওয়ার হোসেন বলেন, সংগীত এবং শোরগোলের মধ্যে যেমন একটা পার্থক্য রয়েছে তেমনি বিতর্ক আর তর্ক এক বিষয় নয়। তিনি বলেন, জ্ঞানকে বিক্ষিপ্ত করে ভাবাই বর্তমানে একটি বড় সমস্যা, সমন্বিত জ্ঞানই সমাধান আনতে পারে। এই কর্মশালা ছাত্র-ছাত্রীদের নেতৃত্বের যোগ্যতা বাড়াতে, জীবনের শৃংখলা বজায় রাখতে এবং আত্মবিশ্বাসী হিসাবে গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আসন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এবং ব্যক্তিত্ব গঠনে ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ এন্ড লিটারারী সোসাইটি দারুণ কাজ করে যাচ্ছে।


বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আইআইইউসি’র কলা ও মানবিক অনুষদের ডীন প্রফেসর মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর বলেন, ভাষা ও মননকে পরিশুদ্ধ করতে বিতর্কের প্রাতিষ্ঠানিক চর্চার প্রয়োজন রয়েছে। বিতর্ক জ্ঞানার্জনের স্পৃহাকে বাড়িয়ে দেয় এবং চিন্তার পরিধীকে প্রসারিত করে। তিনি আরও বলেন, স্বাধীন জ্ঞানার্জনের মাধ্যমেই মানুষ সঠিক ধারণা লাভ ও মতামত প্রকাশ করতে সক্ষম হয়।

Recent News